১৭ অক্টোবর, ২০১৭ | ২ কার্তিক, ১৪২৪ | ২৬ মুহাররম, ১৪৩৯


রোজার প্রস্তুতি

ডেস্ক নিউজ#

ঘড়ির কাঁটা আর ক্যালেন্ডারের পাতা ঘুরে আবার আসছে রোজার মাস। রোজার সঙ্গে সঙ্গে ঈদের আনন্দও অনেক বড় আনন্দ। রোজার এই পুরো মাস নিজেদের একটা সঠিক রুটিনের মধ্যে ফেলে দিলে অর্থাৎ পরিকল্পনা মাফিক চললে রোজার মাসে দিশেহারা ভাব কেটে যাবে অনেকখানি। এই মাসে খাবারের মেন্যু পুরোপুরিভাবেই বদলে যায়। সেহরি ও ইফতারকে ঘিরে বাসাবাড়িতে চলে দৈনন্দিন উৎসব। এ দুই সময়ে খাবারের তালিকায় রয়েছে বেশ পরিবর্তন। একদিকে ছোলা, মুড়ি, পেঁয়াজু বা মজার স্বাদের মুখরোচক খাবার ছাড়া যেন জমে ওঠে না ইফতার, অন্যদিকে সেহরির তালিকায় থাকে স্বাস্থ্যকর সব খাবারের আয়োজন। এ বিষয় মাথায় রেখেই রোজার বাজার প্রস্তুতি শুরু হয়।
পরিচ্ছন্ন ঘরবাড়ি
রোজা শুরুর কয়েক দিন আগেই ঘরবাড়ির চারপাশ পরিষ্কারের কাজটি করে ফেলুন। যাতে রোজার সময় বাড়তি ঝামেলা পোহাতে না হয়। ঘরের ঝুল ময়লা, ফ্যান আসবাবপত্র, বুক শেলফ, জুতার শেলফ সবকিছু পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে গুছিয়ে রাখুন। বাড়ির ছাদ, বাগান, বাড়ির চারপাশ পরিষ্কার করার ব্যবস্থা করুন। বাড়ির দরজা, জানালা, বিদ্যুতের কাজ ও অন্যকিছু মেরামতের কাজগুলো আগে থেকেই করে ফেলুন। পানির পাইপ, বিদ্যুৎ ও গ্যাস লাইনের ত্রুটিগুলো সারিয়ে ফেলুন। দরজা-জানালার পর্দা, বিছানার চাদর, সোফার কভার, কুশন কভার, কার্পেট ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন কিংবা লন্ড্রিতে দিন।

রান্নাঘরের পরিচর্যা

রোজার সময় সবচেয়ে বেশি ঝামেলা যায় রান্নার কাজে। তাই রান্নার জন্য আপনার রান্নাঘরটি অবশ্যই গুছিয়ে নিন। রান্নাঘরের কাবার্ড, শেলফ সব পরিষ্কার করে নিন। মেঝেতে ভিম পাউডার ফেলে গরম পানি দিয়ে ব্রাশ করে পরিষ্কার করে নিন। চুলা প্রতিদিন রান্না শেষে সাবান পানি দিয়ে পরিষ্কার করে রাখুন। তাহলে তেল চিটচিটে হবে না। রোজার রান্নার জন্য বাড়তি হাঁড়িপাতিল দরকার হয়। তাই এ সময় স্টোর থেকে হাঁড়ি-পাতিল বের করে ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করে রাখুন। আপনার ব্যবহৃত রেফ্রিজারেটরে ত্রুটি থাকলে সারিয়ে নিন। ফ্রিজের ভেতর ও বাইরে পরিষ্কার করে নিন। ব্লেন্ডার মেশিন, ওভেন, মিক্সার মেশিন ইত্যাদি এ সময় খুবই প্রয়োজনীয়। তাই এগুলো আগে থেকেই সারিয়ে নিন। রোজার বাজার সদাই রাখার জন্য বাড়তি কিছু কৌটা, বাক্স দরকার পড়ে সেগুলোর ব্যবস্থা করে রাখুন। প্রয়োজন হলে মার্কেট থেকে কিনে রাখুন।

বাজার সদাই

রমজান মানেই সেহরি ও ইফতার। এই সেহরি ও ইফতার তৈরির জন্য রয়েছে কিছু উপকরণ এবং এসব নির্দিষ্ট কিছু উপকরণের জন্য চাই প্রস্তুতি। রোজার মাসে জিনিসপত্রের দাম থাকে অন্যসব মাসের তুলনায় বেশি। তাই রোজার শুরুতেই বাজারের কেনাকাটার একটা পরিকল্পনা করে নিলে ভালো হয়। প্রথমেই আপনার পরিবারের প্রতি মাসের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের তালিকা তৈরি করুন। তার সঙ্গে রোজার বাড়তি সদাইপাতির একটা তালিকা তৈরি করে নিন। যে জিনিস সংরক্ষণ করা যায় যেমন_ পেঁয়াজ, রসুন, আদা, আলু, তেল, মসলা, চিনি, লবণ, ডাল, চাল এবং প্যাকেটজাত কিছু খাবার কিনে রাখুন আগ থেকেই। কাঁচা বাজারটা সম্পূর্ণ গৃহকর্তার ওপর নির্ভর না করে কিছু কিছু আপনিও করে ফেলুন। এ ছাড়া সিরকা, নুডলস, সেমাই, তেল, ঘি, ডিম ইত্যাদি যেসব জিনিস পাড়ার কনফেকশনারি বা মুদি দোকানে পাওয়া যায় তা আপনি আগেই কিনে নিন। মসলাপাতি যা প্রয়োজন তা আগেই কিনে ফেলুন। প্রতি সপ্তাহের একদিন ফল কাঁচাবাজার থেকে কিনে রাখুন। মসলা একটু বেশি করে বেটে ফ্রিজে রাখুন। মাংসের কিমা তৈরি করে ফ্রিজে রাখুন।

ইফতার ও সেহরির প্রস্তুতি

রোজার সময় খাওয়া-দাওয়ায় বদলে যায় মানুষের নিত্যদিনের অভ্যাস। এ সময় দুই বেলার প্রধান খাদ্য নিয়েই মানুষ বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়ে। সেগুলো হলো ইফতার ও সেহরি। খাবারের একটা মেন্যু আগেই তৈরি করে রাখুন। এতে কী রান্না করবেন সেটা নিয়ে ভেবে সময় নষ্ট করতে হবে না। পরিবারের সদস্যদের চাহিদা ও পুষ্টির দিকে লক্ষ্য রেখে ইফতার ও সেহরির মেন্যু তৈরি করুন। ইফতার ও সেহরি পার্টির আয়োজন করতে হলে সে বিষয়েও আগে থেকেই পরিকল্পনা করে রাখুন।

চাই ঈদের কেনাকাটাও

ঈদে জামা কাপড়, বিছানা, আসবাবের সঙ্গে আনুষঙ্গিক অনেক জিনিস কিনতে হয়। যেমন ঘর সাজানোর জন্য নানা ধরনের পটারি, ফুল, ম্যাট, শতরঞ্জি প্রভৃতি। এ ছাড়া রান্নাঘরের তৈজসপত্র, খাবার পরিবেশনের জন্য ডিশ, চামচ, কাপ, পিরিচ, প্লেট প্রভৃতি। তবে যা কিছু কেনার প্রয়োজন তা যতদূর সম্ভব রোজার আগেই কিনে নিন।

সচেতন থাকতে হবে নিজের প্রতি

রোজার দিনে আপনি যেহেতু অনেক পরিশ্রম করবেন তাই ক্লান্তি আপনাকে স্পর্শ করবেই। কিন্তু সেই ক্লান্তিতে যেন অসুস্থ না হয়ে পড়েন এ বিষয়ে সতর্ক থাকুন। এ জন্য নিজেকেও রোজার আগেই প্রস্তুত করুন। পরিবারের প্রতিটি সদস্যের ব্যাপারে গৃহিণী যেমন খেয়াল রাখবেন তেমনি সচেতন থাকতে হবে নিজের সুস্থতার বিষয়টিতেও। – See more at: http://bangla.samakal.net/2017/05/24/295029#sthash.L5lNjJ9p.dpuf

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।