১৭ জুন, ২০১৯ | ৩ আষাঢ়, ১৪২৬ | ১৩ শাওয়াল, ১৪৪০


বিবিএন শিরোনাম
  ●  ঈদগাঁও নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে আইনি নোটিশ   ●  উখিয়ায় ৪ যুবক সহ নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ   ●  সেনাবাহিনীকে জনগণের পাশে দাঁড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী   ●  কক্সবাজার কারাগারে অনুসন্ধানের শুরুতেই দুর্নীতির প্রমাণ পেলো দুদক   ●  টেকনাফে বন্দুক যুদ্ধেে নাইক্ষ্যংছড়ি ছাত্রলীগ নেতা নিহত   ●  ঈদগাঁও থেকে কক্সবাজার শহরের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী রফিকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার   ●  ঢাকার শাহবাগ থেকে ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেপ্তার   ●  যেকোনো প্রকার ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকুন : প্রধানমন্ত্রী   ●  সেই কিশোরের মৃত্যুদণ্ড বাতিল করলো সৌদি আরব   ●  টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

কক্সবাজারে দুদক কমিশনার:

সকালে ডাক্তাররা হাসপাতালে হাজিরা দিয়ে কোথায় যায় নজরে রাখতে হবে

বিশেষ প্রতিবেদক:দুর্নীতি করে পার পেয়ে যাবেন এমনটা ভাবার কোন সুযোগ নেই। দূর্নীতিগ্রস্তদের কঠোর শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে। সকালে হাসপাতালে হাজিরা দিয়ে ডাক্তাররা কোথায় যায় তা নজরে রাখতে হবে। আমি দেশের অন্তত ২৫ টি সরকারী হাসপাতালে গিয়ে ব্যাপক অনিয়ম দেখেছি। এদেশ জনগনের সুতরাং জনগণ কেন সেবা বঞ্চিত হচ্ছে? আর জনগণ সেবা পেলে সরকারী কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কেন আভিযোগের পাহাড় আসে?আমরা সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের মুখ থেকে শুনতে চাই, জনগণ সেবা পেলে কেন আপনাদের বিরুদ্ধে এত অভিযোগ? আর জনগন কেন সেবা পচ্ছেনা-সেটাও জনগণের মুখে শুনতে চাই।বৃহস্পতিবার (১৮এপ্রিল) সকালে কক্সবাজার সদর উপজেলার এড.সাহাব উদ্দীন মিলনায়তনে গণশুনানী চলাকালীন দুর্নীতি দমন কমিশন-(দুদক) কমিশনার (তদন্ত) এ.এফ.এম. আমিনুল ইসলাম প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।জনতাই শক্তি রুখবে দুর্নীতি- এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কক্সবাজারে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)’র গণশুনানী সকাল ১০টায় শুরু হয়ে দুপুর ১টায় শেষ হয়।এতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. আশরাফুল ,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন ও উপজেলা ভূমি অফিস,সাব রেজিস্টার ,পল্লীবিদ্যুৎ ,হিসাবরক্ষণ ,যুবউন্নয়ন,সমাজসেবা,পিআইও,সমবায়,প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সহ বেশ কটি সরকারী অফিস প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।গণশুনানীর শুরুতে অভিযোগ পর্বে, অনুষ্টান স্থলে সম্প্রতি সদর হাসপাতাল নিয়ে সৃষ্ট জনগনের চাপা ক্ষোভের বিস্ফোরন ঘটেছে।ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু,যথাযথ সমস্যা সামাধান না করে উল্টো ডাক্তাদের আন্দোলন নিয়ে সেবা বঞ্চিতরা প্রশ্ন তুল্লে সভায় উত্তপ্ত পরিবেশের সৃষ্টি হয়।অভিযোগকারী নাজিম উদ্দীন বলেন,দফায় দফায় সদর হাসপাতালে ধর্মঘটের কারণে দুই সাপ্তহে অন্তত ২০জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে।চিকিৎসাসেবা প্রার্থীদের ধরে উল্টো মারধর করে রোগীর স্বজনদের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠিয়েছে ডাক্তাররা।এসময় তিনি সদর হাসপাতালে খাবারের মানও খুবই নিম্নমানের বলে আভিযোগ তুলেন।এদিকে প্রশ্ন উত্তর পর্বে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ বিনয় কোন সন্তোষজনক উত্তর দিতে না পারায় উপস্থিত সবার মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।