১৭ জুন, ২০১৯ | ৩ আষাঢ়, ১৪২৬ | ১৩ শাওয়াল, ১৪৪০


বিবিএন শিরোনাম
  ●  ঈদগাঁও নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে আইনি নোটিশ   ●  উখিয়ায় ৪ যুবক সহ নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ   ●  সেনাবাহিনীকে জনগণের পাশে দাঁড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী   ●  কক্সবাজার কারাগারে অনুসন্ধানের শুরুতেই দুর্নীতির প্রমাণ পেলো দুদক   ●  টেকনাফে বন্দুক যুদ্ধেে নাইক্ষ্যংছড়ি ছাত্রলীগ নেতা নিহত   ●  ঈদগাঁও থেকে কক্সবাজার শহরের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী রফিকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার   ●  ঢাকার শাহবাগ থেকে ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেপ্তার   ●  যেকোনো প্রকার ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকুন : প্রধানমন্ত্রী   ●  সেই কিশোরের মৃত্যুদণ্ড বাতিল করলো সৌদি আরব   ●  টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা পারেনি, পেরেছে বাংলাদেশ, বাকি ভারত

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে এলিট ১০টি দেশ। এর মধ্যে উপমহাদেশেরই রয়েছে ৫ দেশ। বাকি বিশ্বের ৫ দেশ। কেউ কেউ বলছেন, বিশ্বকাপের লড়াইটা হচ্ছে মূলতঃ এশিয়া বনাম বাকি বিশ্বের সঙ্গে।

বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা এবং আফগানিস্তান হচ্ছে ভারতীয় উপমহাদেশের বিশ্বকাপে প্রতিযোগি। বাকি ৫টির মধ্যে ইউরোপের ইংল্যান্ড, মধ্য ও উত্তর আমেরিকার ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফ্রিকার প্রতিনিধি হচ্ছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওশেনিয়া অঞ্চলের অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড।

বিশ্বকাপের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত মাঠে নেমেছে এশিয়ার চার প্রতিনিধি। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশ। এখনও মাঠে নামেনি ভারত। এরই মধ্যে এশিয়ার মান রাখতে পেরেছে কেবল বাংলাদেশই। মাঠে নামা বাকি তিন দলের (পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা এবং আফগানিস্তান) হয়েছে শোচনীয় পরাজয়।

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় দিনই মাঠে নেমেছিল পাকিস্তান। প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্যারিবীয় বোলারদের তোপের মুখে পাকিস্তানিরা অলআউট হয়েছে মাত্র ১০৮ রানে। হারতে হয়েছে ৭ উইকেটের ব্যবধানে। পরের দিন দুই ম্যাচের প্রথমটিতে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা। এই ম্যাচে লঙ্কানরা অলআউট হয়েছে মাত্র ১৩৬ রানে। জবাবে ১০ উইকেটে জিতেছে কিউইরা।

সে তুলনায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ভালোই লড়াই করেছে আফগানিস্তান। তারা করেছে ২০৭ রান। যদিও হেরেছে ৭ উইকেটের ব্যবধানে।

সাবেক দুই বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের সঙ্গে নবাগত আফগানদের শোচনীয় পরাজয়ে সবাই ধরেই নিয়েছিল, এশিয়ার কোনো দেশ হয়তো আর বাকি বিশ্বের দেশগুলোর সামনে দাঁড়াতেই পারবে না।

কিন্তু সবার ধারণা ভুল প্রমাণ করলো বাংলাদেশ। লন্ডনের দ্য ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার মত শক্তিশালী দেশকে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৩৩০ রানের বিশাল স্কোর দাঁড় করায় টাইগাররা। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের প্রায় প্রত্যেকেই অবদান রাখলেন এই বিশাল ইনিংস গড়ার ক্ষেত্রে।

শেষ পর্যন্ত লড়াই করলো দক্ষিণ আফ্রিকাও। তারা থামলো ৩০৯ রানে। হারলো ২১ রানে। গৌরবের জয়ে বিশ্বকাপে শুভ সূচনা করলো বাংলাদেশ।

সে সঙ্গে এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে বিশ্বকাপে জয় তুলে নিলো টাইগাররা এবং এশিয়া সম্মান ধরে রাখলো তারা। আগামী ৫ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেই প্রথম মাঠে নামবে ভারত। বিরাট কোহলির দল ওই ম্যাচে কি করে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।