২০ জুলাই, ২০১৯ | ৫ শ্রাবণ, ১৪২৬ | ১৫ জিলক্বদ, ১৪৪০


টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ দুইজন নিহত, আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

টেকনাফের সাবরাংয়ে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ দুইজন নিহত হয়েছে।তারা হলো- টেকনাফ সদরের নাইটং পাড়ার মৃত রশিদ আহমদের ছেলে ৪৯ জন রোহিঙ্গা পাচার মামলার পলাতক আসামি মোঃ রুবেল এবং কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হাবিবুল্লার ছেলে ওমর ফারুক।শনিবার (২২ জুন) দিবাগত রাত ১টার দিকে সাবরাং ইউপিস্থ কাটাবুনিয়া নৌকা ঘাটে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনাটি ঘটে।ঘটনাস্থল থেকে দুইটি এলজি (আগ্নেয়াস্ত্র), ১১ রাউন্ড শর্টগানের তাজা কার্তুজ ও ১৮ রাউন্ড কার্তুজের খোসা উদ্ধার করা হয়েছে বলে পুলিশ দাবি করেছে।পুলিশের ভাষ্যমতে, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। তাদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। নিহতদের মরদেহ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।টেকনাফ মডেল থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ জানান,রোহিঙ্গা পাচার মামলার আসামী মোঃ রুবেল এবং ওমর ফারুককে গ্রেফতারের জন্য কাটাবুনিয়া নৌকা ঘাটে পৌঁছেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে তারা গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়তে থাকে। এতে তারা গুলিবিদ্ধ হয়। ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের ‘মৃত’ ঘোষণা করে।আহত এসআই নুরুল ইসলাম, মোঃ শামিম রেজা ও মোঃ মহি উদ্দিনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পর সুস্থ রয়েছেন।ওসি জানান, ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। ময়নাতদন্ত শেষে নিহত দুই জনের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।