২১ অক্টোবর, ২০১৯ | ৫ কার্তিক, ১৪২৬ | ২১ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম

অন্যায়কারী দল ও জাতির শত্রু, সে কখনো ভাল মানুষ হতে পারে না : তানিম

প্রথমে বুয়েট এর মেধাবী শিক্ষার্থী আবরারের পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মূলক সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। মনে রাখবেন ২০০১-২০০৬ পর্যন্ত বিএনপি জামাত জোট যখন ক্ষমতায় ছিল সারাদেশে আওয়ামীলীগ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নিধন চলছে।যাদেরকে বেঁচে বেঁচে হত্যা করা হয়েছে।সেই দিন রাতে কেউ ঘরে থাকতে পারেনি।অনেক নেতাকর্মী তার বাবার জানাযায় অংশ গ্রহন করতে পারেনি।অনেকে তার বউয়ের ডেলিভারির সময় পাশে থাকতে পারেনি।কেমন করুন অবস্থা ছিল আমরা যারা ১/১১ এর দুঃসময় রাজপথে ছিলাম তারা জানি। অনেকে দু’বেলা তাদের পরিবারে আহার জোগাড় করে দিতে পারেনি।অনেক নেতাকর্মী শতশত মিথ্যা মামলার বোঝা নিয়ে প্রবাস কেটেছে।অনেকে এক টানা ৫-৬-৭ বছর জেলে কারাবন্দী থেকে স্বাধীন বাংলার আকাশ বাতাশের ছোঁয়া পায়নি।ছেলে দেখেনি মায়ের মুখ,মা দেখেনি সন্তানের মুখ,কেউ রক্তাক্ত, কেউ কেউ জেলে, আবার কেউ বিদেশে,কেউ শরীরের অঙ্গ পতঙ্গ হারিয়েছে।কেমন অত্যাচার নির্যাতন চলেছে খালেদা নিজামি জোট সরকার আমলে তা আমরা আজকে অনেকে ভুলে গেছি। কেমন ছিলো সেই দিন গুলো!!! সেই সময় যদি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক বা সোশাল মিডিয়া থাকতো তবে আজকের দিনে সে সকল অপ শক্তিবাদীরা দলের পরিচয় দিয়ে হলুদ চেহেরাটা এই সমাজে দেখাতে পারতো না।বিএনপি জামাত এর রাজনীতি মানে খুন লুটপাট দূর্ণীতির রাজনীতি। আমরা আসলেই অযাচিত সমালোচনা কারী হুজুগে বাঙালি জাতি।না বুঝে না জেনে সমালোচনা করি।গঠনমূলক সমালোচনা কয়জনে করতে পারে। সুতরাং বাংলাদেশ ছাত্রলীগে বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় সব নেতা-কর্মীরা এক নয়।যারা বঙ্গবন্ধু-দেশরত্ন ও দেশকে হৃদয় দিয়ে প্রকৃত ভাবে ভালবাসে তারা কখনো অন্যায় করতে পারে না। অন্যায়কারী দল ও জাতির শত্রু, সে কখনো ভাল মানুষ হতে পারে না। মুষ্টিমেয় অন্যায়কারীদের কারনে সকলকে দোষী ভাবা ঠিক নয়।হাতের আঙ্গুল যেমন সব এক নয় তেমন প্রত্যেক মানুষের চরিত্র ও কর্মকান্ড এক রকম নয়। বিপদ বা সমস্যা বলে আসে না,ব্যক্তি খারাপ হতে পারে তবে সংগঠন নয়।একজনের জন্য পুরো সংগঠনকে দায়ী করা যাবে না। কারন ব্যক্তির চেয়ে দল বড়।তাই আবরার হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত আসামীদের ইতিমধ্যে ২৪ ঘন্টা না হওয়ার আগেই গ্রেফতার হয়েছে এবং সংগঠন থেকে স্থায়ী বহিষ্কার হয়েছে।যা অতীত দিন গুলোতে আমরা দেখিনি। একদল লোক বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর পুরো পরিবারকে কলংকিত করা,রাজনীতি নিষিদ্ধ করা,ফেসবুকে অপপ্রচার সহ নানান মুখী ষড়যন্ত্রের অপপ্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। আমি মনে করি এই অবস্থায় সারাদেশে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সকল নেতাকর্মীদের সজাগ থেকে ফেসবুক,অনলাইন মিডিয়া সহ নিজ নিজ জায়গা থেকে সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার সময় এসেছে। ষড়যন্ত্র অতীতে ছিল আছে আর যুগে যুগে থাকবে যা সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিহত করতে হবে।বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবার ঐক্যবদ্ধ থাকলে কখনো কোন ষড়যন্ত্রকারী জয়ী হতে পারেনি আর পারবেও না। শুভেচ্ছা সহ- মোরশেদ হোসাইন তানিম সাধারণ সম্পাদক ভারপ্রাপ্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কক্সবাজার জেলা শাখা। সাবেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কক্সবাজার জেলা শাখা। সাবেক সভাপতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কক্সবাজার শহর শাখা। সাবেক সভাপতি কক্সবাজার টেকনিক্যাল কলেজ সাবেক সদস্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কক্সবাজার শহর শাখা

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :