২২ আগস্ট, ২০১৯ | ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ | ২০ জিলহজ্জ, ১৪৪০


বিবিএন শিরোনাম
  ●  ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে : প্রধানমন্ত্রী   ●  মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের হামলায় ৩০ সেনা নিহত   ●  মাতামুহুরী নদী থেকে দুই হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ   ●  চৌফলদন্ডীতে পুলিশের উপর হামলা করে ইয়াবা ব্যবসায়ী ছিনতাই, আহত ২   ●  ঈদগাঁওতে সৌদিয়া পরিবহনের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত   ●  জালালাবাদ থেকে দুই ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ   ●  চকরিয়ায় সার্ফারী পার্কে প্রশিক্ষিত হাতির আঘাতে মাহুত নিহত   ●  বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী জিয়াউর রহমানকে ইতিহাস ক্ষমা করেনি-এমপি কমল   ●  আজ ভয়াল একুশে আগস্ট   ●  পদত্যাগ করছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী!

উখিয়ায় চলছে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়, বিপাকে যাত্রীরা

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলাও প্রতিটি উপজেলার ন্যায় একটি ব্যাস্ততম উপজেলা। যেখানে প্রতিনিয়ত চলে রোহিঙ্গাদের আনাগোনা। ফলে যাত্রীদের ভিড়ে পা ফেলার জায়গা নেই। প্রতিদিন উখিয়ায় যানবাহন সংকটে ভোগান্তিতে পড়েছেন বহু মানুষ। ঘণ্টার পর ঘণ্টা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে উখিয়ার যাত্রীদের। আর এই ভোগান্তিকে পুঁজি করে তাদের কাছ থেকে সিএনজি থেকে শুরু করে অটোরিকশার অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ এসেছে। সরেজমিনে দেখা যায়, উখিয়ার মরিচ্যা, কোটবাজার, সদর ও কুতুপালং স্টেশন ছাড়াও সাব-সড়কের যাত্রীরাও হয়রানি হচ্ছে। অটোটেম্পু, সিএনজিও স্বাভাবিক ভাড়ার চেয়ে দ্বিগুণ ভাড়া আদায় করছে। মরিচ্যা থেকে কোটবাজার স্বাভাবিক ভাড়া ১০ টাকা হলে ড্রাইবারেরা বর্তমানে নিচ্ছে ২০ টাকা। উখিয়া থেকে মরিচ্যা স্বাভাবিক সিএনজি রিজার্ব ভাড়া ১০০ টাকা হলে ড্রাইবারেরা ১৫০ টাকা দাবি করে। এভাবেই বাড়তি ভাড়া নেওয়ার নৈরাজ্য চলছে উখিয়ায়। যাত্রীদের অভিযোগ, রোহিঙ্গা ক্যাম্প মুখী যাত্রীদের ভিড় থাকায় পরিবহনের মালিক ও শ্রমিকরা স্থানীয় প্রভাবশালীদের সহযোগিতায় গাড়ির কৃত্রিম সংকট দেখিয়ে যাত্রীদের জিম্মি করে তিন থেকে চার গুণ পর্যন্ত ভাড়া আদায় করছে।এদিকে যানবাহন সংকটের কারণে খোলা ট্রাক, পিকআপ ভ্যান, রিক্সা-ভ্যানে করেও ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন যাত্রীরা। সেখানেও অতিরিক্ত ভাড়া গুণতে হচ্ছে তাদের। গণপরিবহন সংকটের কারণে একরকম বাধ্য হয়েই মালামাল পরিবহনের গাড়িতে উঠতে হচ্ছে যাত্রীদের।অভিযোগ করে অনেকেই বলেন, প্রতিটি গাড়িতেই অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়া হচ্ছে। বাসের সিট ভরে যাওয়ার পরও দাঁড়িয়ে যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। নিয়মের বাইরে যাত্রী নেওয়ার পরও নির্ধারিত ভাড়ার চাইতে বেশি ভাড়া নিচ্ছে।উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, যাত্রীর তুলনায় গাড়ির সংখ্যা কম। এ কারণে বাস থেকে শুরু করে সিএনজি, অটো-টেম্পোর ড্রাইবারেরা অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার চেষ্টা করছেন। আরো বলেন, অতিরিক্ত বাড়া আদায় ঠেকাতে উখিয়ার সড়ক- মহাসড়কে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হবে। যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার ফলে জরিমানা করা হবে ড্রাইবারদের। এটা বন্ধে পুলিশ তৎপর আছে বলে জানান তিনি।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :