১৯ আগস্ট, ২০১৯ | ৪ ভাদ্র, ১৪২৬ | ১৭ জিলহজ্জ, ১৪৪০


এসিল্যান্ডের অবিলম্বে প্রত্যাহারসহ সাংবাদিক নাজেহালের ন্যায় বিচার কামনা

চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (এসিল্যান্ড) খোন্দকার মো: ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত কর্তৃক সিনিয়র সাংবাদিক বিএম হাবিব উল্লাহর সাথে অসাধাচরণ ও নাজেহাল করার প্রতিবাদে কর্মরত সাংবাদিকদের এক যৌথ সভা ১৪ মে সন্ধ্যা ৭টায় পৌর শহরের অভিজাত রেষ্টুরেন্ট ধাঁনসিড়ি কনভেনশন হলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রবীণ সাংবাদিক ও যৌথ সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী জাকের উল্লাহ চকোরী। সভায় বক্তব্য রাখেন চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল মজিদ, সাংবাদিক যথাক্রমে বশির আল মামুন (মানবকণ্ঠ/দি ক্রাইম), মিজবাউল হক ভোরের কাগজ/চট্টগ্রাম মঞ্চ ও দৈনিক কক্সবাজার), মনজুর আলম (যায়যায়দিন), এম মোস্তফা কামাল (কালবেলা), আবদুল মতিন চৌধুরী (জনতা), জহিরুল আলম সাগর (আমাদের কক্সবাজার), মোহাম্মদ উল্লাহ চৌধুরী (আমার সংবাদ/ইনানী), মোহাম্মদ জাহেদ (বাংলাদেশ বেতার), এসএম হান্নান শাহ (সকালের সময়/দেশবিদেশ), অলি উল্লাহ রনি (খবরপত্র/আজকের কক্সবাজার), শাহ জালাল শাাহেদ (সংগ্রাম), ফেরদৌস ওয়াহিদ (রূপালী সৈকত), মো: রিদুয়ানুল হক (বাংলাদেশ সমাচার), এম নুরুদ্দোজা জনি (ভোরের দর্পন), আবদুল করিম বিটু (বাংলাদেশের খবর), সাঈদী আকবর ফয়সাল (আলোকিত উখিয়া), আবুল মনছুর মো: মহসিন (আলোকিত সকাল), নাজমুল সাঈদ সোহেল (প্রতিদিনের সংবাদ)সহ কর্মরত সংবাদকর্মীরা। সভায় এসিল্যান্ডের হাতে নাজেহালকৃত সাংবাদিক ডেইলি নিউ নেশন এর চকরিয়া প্রতিনিধি ও দৈনিক আমাদের বাংলা ও দৈনিক আমাদের চট্টগ্রাম এর কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি এবং অনলাইন পত্রিকা আলোকিত চকোরিয়া ডট কমের সম্পাদক ও প্রকাশক বিএম হাবিব উল্লাহ সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, তিনি ইতিমধ্যে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এতে তিনি জানিয়েছেন, চকরিয়া এসিল্যান্ড অফিসের সহকারী তপন কান্তি পালের বদলী জনিত কারণে চকরিয়া জেলা প্রশাসকের আদেশ ৩ মাসেও কার্যকর হয়নি শিরোনামে সংবাদটি পত্রিকায় ও বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত হয়। ওই সংবাদের ফলোআপ করতে গত ৯ মে বিকাল ২:৩০ ঘটিকায় তিনি (সাংবাদিক হাবিব) এসিল্যান্ড অফিসে গেলে অফিসের সহকারী তপন কান্তি পাল ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে এসিল্যান্ডের সাথে আলাপরত থাকায় তিনি অপেক্ষামান থাকেন। বিকাল সাড়ে ৩টা নাগাদ এসিল্যান্ড ক্ষেপে গিয়ে তার অফিস কক্ষ থেকে বের হয়ে তাকে (হাবিব) উদ্দেশ্য করে সেবা নিতে আসা জনতার সামনে “বালের সাংবাদিক”সহ ইত্যাদী অকাট্য ভাষায় দুর্ব্যাবহার করতে থাকেন। ওই সময় এসিল্যান্ড পরিকল্পিতভাবেই সাংবাদিককে হেনস্থা করার চেষ্টা করেন। এমনকি পরবর্তীতে তার অফিসে কোন নিউজ সংগ্রহ করতে গেলে তার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেসি ক্ষমতার অপব্যবহার করে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তাকে (সাংবাদিক হাবিব) সাজা দেওয়ারও হুমকি দেন। এদিকে চকরিয়ার কর্মরত সাংবাদিকদের অনুষ্ঠিত যৌথ সভায় ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। সভায় সাংবাদিকরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অবিলম্বে অসাধাচারণকারী এসিল্যান্ড খোন্দকার মো: ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাতের শাস্তিমূলক প্রত্যাহারসহ সাংবাদিক নাজেহালের ন্যায় বিচার কামনা করেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :