২২ অক্টোবর, ২০১৯ | ৬ কার্তিক, ১৪২৬ | ২২ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম
  ●  রোহিঙ্গা যুবককে ছেলে সাজিয়ে ভোটার করার চেষ্টা, ২ জনের সাজা   ●  ঢাকায় বিমান থেকে নেমে চকরিয়ার ২ তামাক ব্যবসায়ী নিখোঁজ   ●  আবারও প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো   ●  একনেকে ৪,৬৩৬ কোটি টাকার ৫টি প্রকল্প অনুমোদন   ●  ঈদগাঁওতে ৭ বছরের ভাতিজিকে ধর্ষনঃ ধর্ষক চাচা আটক   ●  মাদক মামলায় এসআই’র ৫ বছরের কারাদণ্ড   ●  ঈদগাহকে থানা হিসেবে অনুমোদন   ●  কক্সবাজারের সোনাদিয়া দ্বীপে শিল্প-কারখানা স্থাপন নয় : প্রধানমন্ত্রী   ●  কক্সবাজার জেলা কমিউনিটি পুলিশ : সাংবাদিক তোফায়েল সভাপতি, যুবলীগের বাহাদুর সেক্রেটারি   ●  গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক অনুভূতিতে আঘাত হানা থেকে বিরত থাকুন : ডিসি কামাল হোসেন

কুতুবদিয়ায় স্বেচ্ছাশ্রমে জোয়ারের পানি ঠেকানোর চেষ্টা

কুতুবদিয়া বেড়িবাঁধের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ মুরালিয়া ও তৎসংলগ্ন আলী আকবর ডেইলের কুমিরাচরা অংশ। এই দুই অংশ দিয়ে নিয়মিত স্বাভাবিক জোয়ারের পানি প্রবেশ করে প্লাবিত হচ্ছে বড়ঘোপ ও আলী আকবর ডেইল ইউনিয়নের কয়েকশত একর ফসলি জমি ও সহশ্রাধিক পরিবার।

ঈদুল আযহার পরের দিন থেকে জরুরি ভিত্তিতে জোয়ারের পানি ঠেকানোর জন্য বাঁশের খাঁচা তৈরি করে তার ওপর বালির বস্তা দিয়ে কুতুবদিয়া বেড়িবাঁধের বড়ঘোপ মুরালিয়া অংশে দীর্ঘ পাঁচশত মিটার বেড়িবাঁধ নির্মানের কাজ স্বোচ্ছাশ্রমে কাজ শুরু করেছে বড়ঘোপ ইউনিয়নের যুবসমাজ ও সাধারণ জনগণ।

জানা গেছে, ঈদুল আযহার ছুটিতে দ্বীপের বাহিরে থাকা যুবসমাজ বাড়িতে আসলে তাদেরকে কুতুবদিয়া বেড়িবাঁধের বড়ঘোপ ইউনিয়নের মুরালিয়া ভাঙ্গা অংশে মাটি দেয়ার কাজে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী ও বড়ঘোপ ইউপির চেয়ারম্যান আ.ন.ম শহীদ উদ্দিন ছোটন। তাদের ডাকে সাড়া দিয়ে ঈদের পরের দিন থেকে এলাকার যুব সমাজ নেমে পড়ে কাজে।

স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কামাল হোসান ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কোস্ট ট্রাস্টের আর্থিক সহযোগিতায় ব্যক্তি উদ্যোগে বাঁশের খাঁচা তৈরি করে তার ওপর বালির বস্তা দিয়ে কুতুবদিয়া বেড়িবাঁধের বড়ঘোপ মুরালিয়া অংশে দীর্ঘ পাঁচশত মিটার বেড়িবাঁধ নির্মানের কাজ শুরু করেছেন বড়ঘোপ ইউপি’র নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আ.ন.ম শহীদ উদ্দিন ছোটন।

কাজের উদ্বোধন করেন, কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ভাঃ) এসিল্যান্ড সুপ্রভাত চাকমা।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুপ্রভাত চাকমা বলেন, উদ্যোগ ও সৎ সাহস এবং মানুষের জন্য কাজ করার ইচ্ছা থাকলেই যে কোন প্রতিকূলতা জয় করা সম্ভব। এদিকে কোস্ট ট্রাস্টের মত অন্যান্য বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ও বিত্তবানদের কুতুবদিয়া বেড়িবাঁধের গুরুত্বপূর্ণ ভাঙ্গাংশগুলো জরুরি ভিত্তিতে নির্মাণ কাজে সহযোগিতা করার জন্য এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানিয়েছেন কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :