২১ অক্টোবর, ২০১৯ | ৫ কার্তিক, ১৪২৬ | ২১ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম

খুটাখালীতে সীমানা বিরোধের জের ধরে স্কুল ছাত্রকে মারধর

বসত বাড়ির সীমানা বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের লাটির আঘাতে গুরুত্বর আহত হয়েছে স্কুল ছাত্র তৌহিদুল ইসলাম আরমান। তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তৌহিদ চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী কিশলয় আর্দশ শিক্ষা নিকেতনের নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে সাতটার সময় বর্ণিত ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড মধ্যম গর্জনতলী এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। তৌহিদের পিতা মাছ ব্যবসায়ী মনজুর আলমের অভিযোগ, তাদের বসত বাড়ির উত্তর সীমানার ঘেরা বেড়া কাজ করতে চাইলে একই এলাকার ফখরুল ইসলামের কন্যা রুখসানা আক্তার তেলে বেগুনে জ্বলে উঠে। এসময় সে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করলে তার স্কুল পড়ুয়া পুত্র তৌহিদুল ইসলাম আরমান গালি গালাজ কেন করা হচ্ছে বলে প্রতিবাদ করে। একপর্যায়ে রুখসানার নেতৃত্বে তাদের পরিবারের ৫/৬ জন লোক তৌহিদকে লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুড়ে মারে। সে দ্রুত সরে যেতে চাইলে রুখসানা দৌড়ে এসে লাঠি দিয়ে স্বজুরে তৌহিদের মাথায় আঘাত করে। লাঠির আঘাতে তৌহিদ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। তার শোরচিৎকারে আমরা ঘর থেকে বের হয়ে তাকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে ছেলে চিকিৎসাধীন তার মাথায় জখম হয়েছে। চিকিৎক জানিয়েছেন তার অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানা গেছে। গুরুত্বর আহত তৌহিদুল ইসলাম আরমান জানায়, এদিন সকালে রুখসানা তার পরিবারের লোকজন আমার পিতা-মাতাকে গালি-গালাজ করে উঠলে আমি তাদের বাধা দিই। এসময় রুখসানা লাঠি দিয়ে আমার মাথায় জুরে আঘাত করলে মাটিতে পড়ে যায়। এরপর আর কিছুই মনে নেই। তৌহিদের মা মাহমুদা বেগম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রুখসানার পরিবার তাদেরকে নির্যাতন করে আসছে। সীমানার ঘেরা-বেড়ার বিরোধের জের ধরে তারা আমার পুত্রকে মারধর করেছে। বিষয়টি তাৎক্ষনিক স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার অলি আহমদকে অবহিত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। জানতে চাইলে ওয়ার্ড মেম্বার অলি আহমদ বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার জন্য বলা হয়েছে এবং আহত স্কুল ছাত্র তৌহিদকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে। কেহ অভিযোগ দিলে পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে ঘটনার পর থেকে মনজুরের পরিবার চরম আতংকে দিনাতিপাত করছে। তাদের অভিযোগ যে কোন সময় ফের অপ্রীতকর ঘটনা ঘটিয়ে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানীর করা হবে বলে আশংকা করছেন। তিনি ঘটনার সুষ্ট তদন্তপূর্বক স্থানীয় ও থানা পুলিশের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :