২২ আগস্ট, ২০১৯ | ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ | ২০ জিলহজ্জ, ১৪৪০


বিবিএন শিরোনাম
  ●  ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে : প্রধানমন্ত্রী   ●  মিয়ানমারে বিদ্রোহীদের হামলায় ৩০ সেনা নিহত   ●  মাতামুহুরী নদী থেকে দুই হাজার মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্দ   ●  চৌফলদন্ডীতে পুলিশের উপর হামলা করে ইয়াবা ব্যবসায়ী ছিনতাই, আহত ২   ●  ঈদগাঁওতে সৌদিয়া পরিবহনের ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত   ●  জালালাবাদ থেকে দুই ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ   ●  চকরিয়ায় সার্ফারী পার্কে প্রশিক্ষিত হাতির আঘাতে মাহুত নিহত   ●  বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডের প্রধান আসামী জিয়াউর রহমানকে ইতিহাস ক্ষমা করেনি-এমপি কমল   ●  আজ ভয়াল একুশে আগস্ট   ●  পদত্যাগ করছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী!

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে হামলাকারীর পক্ষ নেওয়া পুলিশ কর্মকর্তার অপসারন দাবী

বিবিএন ডেস্ক :

ctg-pressচট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে ও সাংবাদিকদের উপর হামলাকারীর পক্ষ নেওয়া সিএমপির অতিরিক্তি কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) দেবদাস ভট্টাচার্য সহ সংশ্লীষ্ট পুলিশ কর্মকর্তাদের দ্রুত অপসারনের দাবী জানিয়েছেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা।
চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ন সম্পাদক স্বরুপ ভট্টাচার্যের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তারা বলেন, প্রেসক্লাবে হামলার ঘটনা ইতিহাসের কালো অধ্যায়ের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনা কখনো মেনে নেওয়ার নয়। কেননা, ক্লাবের সাথে সাংবাদিক সমাজের মান সম্মান ও অস্তিত্ব জড়িত আছে। এ অস্তিত্বের উপর আঘাত হানলে ছাড় দেওয়ার প্রশ্নই উঠেনা।
বক্তারা আরো বলেন, প্রেসক্লাবে হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে ও গ্রেফতারকৃতদের দ্রুত বিচার আইনে প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে পুলিশ মামলা গ্রহণ করলেও পরে বাদিকে না জানিয়ে সেই আইনের পরিবর্তে দুর্বল ধারা সংযোজন করে। ৭ ডিসেম্বর ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালনকারী দেবদাস ভট্টাচার্যের নির্দেশে কোতয়ালি থানার ওসি বাদির অজান্তে মামলার ধারা পরিবর্তন করে। যাতে আসামিরা সুকৌশলে ছাড় পাইয়ে যেতে পারে।
বক্তারা আক্ষেপের সাথে বলেন, পুলিশ যেখানে সাংবাদিকদের বেলায় এহেন ন্যাক্কারজনক কাজ করতে পেরেছে, সেখানে সাধারন মানুষ তাদের কাছে কতটুকু নিরাপদ হতে পারে তা বোধগম্য নই।
তারা হুশিয়ারী উচ্চারন করে বলেন, মামলার ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার সাথে জড়িত সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) দেবদাস ভট্টাচার্য সহ সকল কর্মকর্তাদের দ্রুত অপসারন ও ঘটনার সাথে জড়িত সকল উগ্রপন্থিদের গ্রেফতারের দাবীতে প্রয়োজনে মাসের পর মাস আন্দোলন চলতে থাকবে। তবুও কোন হামলাকারী ও ষড়যন্ত্রকারীকে ছাড় দেওয়া হবেনা।
শনিবার চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
এতে বক্তব্য রাখেন, বিএফইউজে’র সহ সভাপতি শহীদ উল আলম, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি কলিম সরোয়ার, সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী , চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি আবুল মনছুর, সাবেক সভাপতি মোস্তাক আহমেদ, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আলী আব্বাস, বর্তমান সহ সভাপতি সালাহউদ্দিন রেজা ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, সিইউজের সহ সভাপতি নিরুপম দাশগুপ্ত, বিএফইউজের নির্বাহী সদস্য আসিফ সিরাজ, চট্টগ্রাম ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ মাহমুদ, সিইউজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, সিইউজের অর্থ সম্পাদক উজ্জ্বল ধর।
এছাড়া একুশে টেলিভিশনের আবাসিক সম্পাদক রফিকুল বাহার আক্রান্ত সাংবাদিকদের পক্ষে বক্তব্য দেন। সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ, চট্টগ্রামের সভাপতি ডা.এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম।
সমাবেশ শেষে সন্ত্রাসীদের পক্ষ নেয়া পুলিশ কর্মকর্তাদের অপসারণ চেয়ে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজি) বরাবরে স্মারকলিপি দেয়া দেন সাংবাদিক নেতারা। চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব যৌথভাবে বিভাগীয় কমিশনারের মাধ্যমে এই স্মারকলিপি দেন। স্মারকলিপিতে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার ‍ধারা পরিবর্তন করে দ্রুত বিচার আইন সংযোজনের দাবি জানিয়েছে সংগঠনের নেতারা। সূত্র : সিবিএন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :