১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন, ১৪২৬ | ১৪ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম
  ●  র‌্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে যুবলীগ নেতা নিহত   ●  নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপির ভোট আজ : বহিরাগত ঠেকাতে বারটি তল্লাশিচৌকি   ●  কক্সবাজারে শতাধিক বৌদ্ধ বিহারে প্রবারণা উৎসব শুরু   ●  আলীকদমে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ১৩   ●  মহেশখালীতে জাতীয় দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত   ●  আঘাত হেনেছে প্রলয়ঙ্করী টাইফুন, নিহত ১১   ●  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ করবে সেনাবাহিনী- কক্সবাজারের সেনাপ্রধান   ●  যুবলীগের প্রত্যেককে ভালো মানুষ ও ভালো নেতা-কর্মী হতে হবে : সোহেল আহমদ বাহাদুর   ●  রোহিঙ্গাদের যারা ভোটার করবে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে : অতিরিক্ত সচিব   ●  যুক্তরাষ্ট্রের ব্রুকলিনে বন্দুক হামলা, নিহত ৪

‘পুলিশের কেউ মাদকের সাথে জড়ালে সাদা পোশাকে বাড়ি পাঠানো হবে’

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বলেছেন, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে পুলিশের পাশাপাশি সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে কাজ করতে হবে। সবাই সহযোগিতা করলে চলমান মাদকের আগ্রাসন কমাতে অবদান রাখতে পারবে পুলিশ। মাদক নির্মূলে পুলিশের জিরো টলারেন্স রয়েছে। একই সাথে পুলিশের কোনো সদস্য মাদকের সাথে জড়িত বা মাদক ব্যবসায়ীদের সম্পর্ক রাখলে তাকে সোজা সাদা পোশাকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হবে।সোমবার মহেশখালীতে চৌকিদার প্যারেড ও আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।তিনি আরো বলেন, দেশে জনসংখ্যার তুলনায় পুলিশের সংখ্যা সংখ্যা কম। আর পুলিশের ১০টা হাতও নেই। তাই সব অপরাধীকে এক সাথে ধরা পুলিশের পক্ষে সম্ভব না। তবে অপরাধীদের ধরা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সব অপরাধীকে ধরবোই। পুলিশের এই অপরাধী ধরায় সর্বাত্মকভাবে সহযোগিতা করছে গ্রামপুলিশরা। তারা রাত জেগে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আসামী ধরতে পুলিশকে সহযোগিতা করে। এভাবে তারা দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ব্যাপকভাবে ভূমিকা রেখে যাচ্ছে।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক বলেন, ‘গ্রাম পুলিশেরা অল্প বেতনে খেয়ে-না খেয়ে নিরলসভাবে দেশের আইন-শঙ্খলা রক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে। এই অবদান মূল্যায়ন করে প্রধানমন্ত্রী এবার তাদের জীবনমানের উন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। তাদের বেতন-ভাড়া বৃদ্ধির একটি প্রস্তাব হয়েছে। শিগগিরই তা বাস্তবায়ন হবে। এটি বাস্তবায়ন হলে গ্রাম পুলিশদের আর কোনো অর্থনৈতিক কষ্ট থাকবে না।’এসময় প্রতিটি ইউনিয়নের গ্রামপুলিশদের জন্য পাঁচটি করে সাইকেল বরাদ্দ দেয়ার ঘোষণা দেন আশেক উল্লাহ রফিক।মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রভাষ চন্দ্র ধরের সভাপতিত্বে মহেশখালী থানার উদ্যোগে থানা চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড. সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের সভাপতি ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ, মহেশখালী উপজেলা চেয়ারম্যান শরীফ বাদশা, মহেশখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা, কক্সবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম, সহকারী পুলিশ সুপার (ডিএসবি) শহীদুল ইসলাম, মহেশখালী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার রতন কুমার চক্রবর্তী।উপস্থিত রয়েছেন, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দসসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ। উপস্থিত রয়েছেন মহেশখালীর কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ। এছাড়া প্রতিটি ইউনিয়নের কর্মরত চৌকিদার বৃন্দ। অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ চৌকিদারদের মাঝে ক্রেস্ট ও অর্থ বিতরণ করা হয়।অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে মহেশখালী থানার ওসি (তদন্ত) বাবুল আজাদের নেতৃত্বে পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তা ও সদস্যরা সর্বাত্মকভাবে সহযোগিতা করেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :