১৯ আগস্ট, ২০১৯ | ৪ ভাদ্র, ১৪২৬ | ১৭ জিলহজ্জ, ১৪৪০


বিবিএন শিরোনাম

পেকুয়ায় আইল্যা বাহিনীর ত্রাসের রাজত্ব চলছে, এলাকাবাসি জিন্মি

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা বাহিনীর প্রধান আইল্যা এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। তার কথা মতো কাজ না করলে যে কারো’র উপরে নেমে আসছে চরম নির্যাতন ও অত্যচার। তার বাহিনীর সদস্যদের অত্যচারে এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। খুন, অপহরণ, ডাকাতি, দাঙ্গা-হাঙ্গামা, নাশকতাসহ প্রায় ডজন মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা থাকার পরও পুলিশ রহস্যজনক কারণে তাকে ধরছেন না। এতে পুরো এলাকার মানুষ তার কাছে জিন্মি হয়ে পড়েছে।পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূর্বমেহের নামার ভুক্তভোগী কৃষক ওলা মিয়া জানান; পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মোরার পাড়ার কামাল হোছেনের ছেলে লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা, একই এলাকার মৃত বাদশার ছেলে জয়নাল আবেদীন, আবদুর রহিমের ছেলে সাহেদ প্রকাশ পুতুমনি ও আলী হোছেনের ছেলে ছাদেকুর রহমানসহ আরো কয়েকজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী নিয়ে এই সন্ত্রাসী বাহিনীটি গড়ে উঠেছে। তারা এলাকায় সব দখল বেদখল, চাঁদাবাজি সহ নানা অপরাধ মূলক কাজে নেতৃত্ব দিয়ে থাকে। তাদের ইচ্ছার বাইরে গিয়ে কেউ এলাকায় টিকতে পারছেন না। ওই বাহিনীর প্রধান লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা একজন দুর্ধর্ষ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে পেকুয়া ও চকরিয়া থানায় খুন, ডাকাতি, অপহরণ, দাঙ্গা-হাঙ্গামা, নাশকতা সহ প্রায় এক ডজন মামলা রয়েছে। এসব মামলায় সে দীর্ঘদিন ধরে পলাতক রয়েছে। তারপরও এলাকায় প্রকাশ্যে বীরদর্পে চলাফেরা করছে। ওই ভুক্তভোগী ওলা মিয়া আরও জানান; গত ২৯ এপ্রিল তার কলেজ পড়–য়া ছেলে ইমরান হোসেন বিজয়(২০)কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের পর তাকে হত্যা করার চেষ্টা চালায়। ওই সময়ে পুলিশ ও এলাকার শতশত মানুষ অপহরণকারীদের ঘেরাও করে। এক পর্যায়ে পুলিশ তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতারে ভর্তি করায়। এ ব্যাপারে ৯ জনকে আসামী করে ওলা মিয়া বাদী হয়ে পেকুয়া থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। গত ২৪ মার্চ লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা ও তার বাহিনীর সদস্যরা দক্ষিণ মেহের নামা আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা ওসমান(৩৩)কে অপহরণ করে হত্যা চেষ্টা চালায়। এ সময় এলাকাবাসি তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। ওসমান এখনও হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। তাকে হত্যা চেষ্টা ও মারধর করে গুরুতর আহত করায় পেকুয়া থানায় ১১ জনের নামে একটি মামলা হয়েছে। তার স্ত্রী পারভিন আক্তার জানান; সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করায় এখন তাদেরকে এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা। আইল্যা বাহিনীর প্রধান আইল্যা চকরিয়া উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের পুরুত্যাখালী এলাকার আলোচিত ওসমান হত্যা মামলারও প্রধান আসামী। এসব মামলায় লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা ও তার বাহিনীর সদস্যরা এখন পলাতক। এলাকাবাসি জানায়; আইল্যা বাহিনী এলাকায় মাদকসহ ইয়াবা কারবারও নিয়ন্ত্রন করে থাকে। লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা ও তার বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা থাকার পরও এলাকায় প্রকাশ্যে প্রতিনিয়ত ঘুরছে। তারা প্রতিদিন এলাকার মানুষের উপর নানাভাবে অত্যচার নির্যাতন চালিয়ে গেলে পুলিশ রহস্যজনক কারণে তাদের ধরছেন না। এতে এলাকার নিরীহ মানুষ এই বাহিনীর সদস্যদের কাছে জিন্মি হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাকের হোসেন ভূইয়া জানান,  লিয়াকত আলী বিভিন্ন মামলার আসামী। তাকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশ হন্য হয়ে খুঁজছে। কক্সবাজার-১ (চকরিয়া পেকুয়া) আসনের সাংসদ জাফর আলম এমএ বলেন; লিয়াকত আলী প্রকাশ আইল্যা একজন দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী। কেউ না কেউ তাকে প্রশ্রয় দিচ্ছেন। আমি তার ব্যাপারে জেলা পুলিশ সুপারকেও অবহিত করেছি। আশা করছি কোন অপরাধী রেহায় পাবে না, পুলিশ অতিসত্তর তার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা নিবেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :