১৪ অক্টোবর, ২০১৯ | ২৯ আশ্বিন, ১৪২৬ | ১৪ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম
  ●  র‌্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে যুবলীগ নেতা নিহত   ●  নাইক্ষ্যংছড়ির তিন ইউপির ভোট আজ : বহিরাগত ঠেকাতে বারটি তল্লাশিচৌকি   ●  কক্সবাজারে শতাধিক বৌদ্ধ বিহারে প্রবারণা উৎসব শুরু   ●  আলীকদমে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ১৩   ●  মহেশখালীতে জাতীয় দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত   ●  আঘাত হেনেছে প্রলয়ঙ্করী টাইফুন, নিহত ১১   ●  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের কাজ করবে সেনাবাহিনী- কক্সবাজারের সেনাপ্রধান   ●  যুবলীগের প্রত্যেককে ভালো মানুষ ও ভালো নেতা-কর্মী হতে হবে : সোহেল আহমদ বাহাদুর   ●  রোহিঙ্গাদের যারা ভোটার করবে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে : অতিরিক্ত সচিব   ●  যুক্তরাষ্ট্রের ব্রুকলিনে বন্দুক হামলা, নিহত ৪

ফরিদ আহমদ কলেজের প্রতিষ্টতা রশীদ আহমেদের ৩১তম স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত 

সমাজ সেবক মরহুম রশীদ আহমদের ৩১ তম স্মরণ সভায় বক্তারা বলেন, মরহুম রশীদ আহমদ, ফরিদ আহমদ কলেজ, নাদেরুজ্জামান উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করে অমর হয়ে আছেন।শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজে আয়োজন করা হয়েছিল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম রশীদ আহমদের ৩১ তম মৃত্যু বার্ষিকীর স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা একথা বলেন।
কলেজ প্রাঙ্গনে মনোরম প্যান্ডেলে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপ্যাল গোলাম মোস্তফা।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজ প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক মরহুম রশীদ আহমদের স্ত্রী ফরিদা আর রহমান।
প্রধান অতিথি ফরিদা আর রহমান বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠান আমার স্বামী করে গেলেও তিনি এই প্রতিষ্ঠানের সাথে আছেন। এখানে আসলে তিনি আবেগ ধরে রাখতে পারেন না। তিনি বলেন, আগে থেকে এর সাথে ছিলেন আগামীতেও তিনি এই প্রতিষ্ঠানের সাথে থাকবেন। এর জন্য তাঁর সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।
স্মরণ সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন সাবেক এমপি ইন্জিনিয়ার মুহাম্মদ সহিদুজ্জামান। বিশেষ আলোচক ছিলেন কলেজের গভর্নিংবডির সভাপতি কক্সবাজার সদর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু তালেব।
প্রধান আলোচক সাবেক এমপি মুহাম্মদ সহিদুজ্জামান বলেন, একটি জাতি শিক্ষিত নাহলে সব দিকদিয়ে পিছিয়ে পড়ে। তাঁর চাচা মরহুম রশীদ আহমদ ছিলেন, শিক্ষানুরাগী, মেধাবী, ও মহৎ প্রাণ একজন অনন্য মানুষ। তিনি সেদিন এখানে জঙ্গলে এই কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তাঁর চাচা মরহুম রশীদ আহমদ তাঁর মরহুম পিতা সাবেক এমপি মওলবী ফরিদ আহমদের নামেই এই কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এটি এখন বিশ্বিবদ্যালয় কলেজে পরিণত হয়েছে। অত্র এলাকার হাজারো ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষিত হচ্ছেন। এটা অনেক বড় কথা।
তিনি বলেন, লেখা পড়ায় আমরা অনেক এগিয়েছি তবে আমরা যেন এখন মানবিকতা ও ধর্মীয় মূল্যবোধ হারাতে বসেছি। তিনি কলেজ শিক্ষার্থীদের প্রতি লেখা পড়া শেখার পাশাপাশি মানবিকতা ও ধর্মীয় মূলয়বোধ চর্চারও আহবান জানান।তাঁর বড় ভাই কক্সবাজারের জনপ্রিয় সংসদ সদস্য মরহুম এড. খালেকুজ্জামান ও তিনি এমপি তাকাকালীন সময়ে এই কলেজে সহযোগিতা ও অবদানের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, আগামীতেও সব সময় এ কলেজের প্রতি তাঁর ও তাঁর পরিবারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।
ইঞ্জিনিয়ার সহিদুজ্জামান তাঁর মরহুম চাচা রশীদ আহমদের মত তাঁর চাচী ফরিদা আর আহমদের ব্যাপারে বলেন, তিনি ও চাচার মত বড় মনের সমাজ সেবক। চাচার অবর্তমানে তিনিও চাচার কাজ গুলো দেখাশুনা অব্যাহত রেখেছেন। এটা আমাদের সৌভাগ্য।
আগামীতেও মরহুম মৌলবী ফরিদ আহমদ ও মরহুম রশীদ আহমদের উত্তরসূরীরা এই এলাকার মানুষের পাশে তাকবে এবং তাদের সমাজ কর্মগুলো দেকাশুনা করবেন এই প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন তিনি।বিশেষ আলোচক কলেজের গভর্নিংবডির সভাপতি কক্সবাজার সদর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আবু তালেব বলেন, গুণীদের গুনের স্বীকৃতি না দিলে চরম অকৃতজ্ঞতা হয়।
এই কলেজের প্রতিষ্ঠা মরহুম রশীদ আহমদ একজন বড় আত্মার দানবীর, শিক্ষাবিদ ও মহৎ প্রান মানুষ ছিলেন। তার সহধর্মিনী ফরিদা আর আহমদ ও তাঁর যোগ্য উত্তরসূরি। সাবেক এমপি ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সহিদজ্জামনহস এই পরিবারের অবদানের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা জানান।অধ্যাপক জসিম উদ্দিন তাঁর বক্তৃতায় বলেন, কলেজ প্রতিষ্ঠাতা মরহুম রশীদ আহমদ যেমন অকাতরে অর্থ এবং সময় দিয়ে এই কলেজ করেছেন তেমনি তাঁর যোগ্য স্ত্রী ফরিদা আর আহমদ ও এই কলেজে অবদান রেখে যাচ্ছেন। কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা তাঁদের প্রতি আজীবন কৃতজ্ঞ থাকবে।
সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, প্রবীণ সাংবাদিক বদিউল আলম, সাংবাদিক শামসুল হক শারেক ও জানে আলম।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, অধ্যাপক জাকের আহমদ, অধ্যাপক শহিদুল আলম মির্জা, অধ্যাপক রিদুয়ানুল হক, অধ্যাপক জেবুন্নেসা সায়েরা, অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন, অধ্যাপক জিয়াউল করিম, অধ্যাপক জাহাঙ্গীর ও অধ্যাপক সরওয়ার আলম প্রমূখ।সার্বিকভাবে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম।
সভায় কলেজ ছাত্র ছাত্রীরা স্বরচিত কবিতা পাঠ করে ও বক্তব্যের মাধ্যমে মরহুম রশীদ আহমদকে স্মরণ করেন।আলোচনা সভা শেষে মরহুম রশীদ আহমদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।এর আগে সকালে ফরিদা-রশীদ হেফজ খানা ও এতিম খানায় খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিল এবং নাদেরুজ্জামান উচ্চ বিদ্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :