১৯ আগস্ট, ২০১৯ | ৪ ভাদ্র, ১৪২৬ | ১৭ জিলহজ্জ, ১৪৪০


বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে নিষিদ্ধ আনুশকা!

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সর্বশেষ আসরের ফাইনালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে হারের ক্ষত হয়তো এখন পর্যন্ত ভুলতে পারেনি ভারত। ওই ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৮০ রানের বড় ব্যবধানে হারে বিরাট কোহলির দল। ভারতের ভক্ত-সমর্থকদের দাবি, কোহলির স্ত্রী ও বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা গ্যালারিতে উপস্থিত থাকার কারণে ওই ম্যাচে হেরেছে ভারত।

এখানেই শেষ নয়, ২০১৫ সালে বিশ্বকাপের সর্বশেষ আসরে সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছিল ভারত। তখনো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভক্ত-সমর্থকদের আক্রমণের বিষয়বস্তু ছিলেন আনুশকা শর্মা। কারণ ওই ম্যাচেও গ্যালারিতে উপস্থিত ছিলেন তিনি।

এরপর থেকে ভক্ত-সমর্থকদের একটি অংশ মনে করছে, আনুশকা গ্যালারিতে উপস্থিত থাকলে ভারত হারে। তাই ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগে থেকেই তাই আনুশকাকে নিয়ে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করে আসছিলেন তারা। এবার বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ইন্ডিয়াকেও (বিসিসিআই) পাশে পেলেন ভারতীয় ভক্ত-সমর্থকরা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সরগরম হয়ে ওঠার আগেই নিষেধাজ্ঞা এসেছে আনুশকার ওপর। কেবল আনুশকা শর্মাই নন, জাতীয় দলের সব ক্রিকেটারের স্ত্রী কিংবা বান্ধবীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বিসিসিআই। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে, বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার ২১ দিন পর ক্রিকেটারদের স্ত্রী কিংবা পরিবারের অন্যান্য সদস্য তাদের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন। কেবল শেষ ১৫ দিন ক্রিকেটারদের সঙ্গে থাকতে পারবেন তাদের স্ত্রী-সন্তানরা।

অর্থাৎ বিশ্বকাপের প্রথম ২১ দিন স্ত্রী-সন্তান কিংবা বান্ধবীদের কাছে পাচ্ছেন না ক্রিকেটাররা। এমনকি গ্যালারিতেও তাদের দেখা যাবে না। এর অর্থ ১৬ জুন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে পাকিস্তানের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ এবং শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচের দিন গ্যালারিতে উপস্থিত থাকতে পারছেন না আনুশকা শর্মাসহ অন্যান্য ক্রিকেটারের স্ত্রী-সন্তান কিংবা বান্ধবীরা।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :