২১ অক্টোবর, ২০১৯ | ৫ কার্তিক, ১৪২৬ | ২১ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম

মহেশখালীতে পৃথক অগ্নিকান্ডে ৬ বসতবাড়ী পুড়ে আহত ৩

মহেশখালী সংবাদদাতা#

মহেশখালীতে পৃথক ২টি অগ্নিকান্ডে ৫ বসত বাড়ী ও ১টি দোকান ঘর পুড়ে চাই হয়ে গেছে।অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ব্যাপক ক্ষক্ষতির পাশাপাশি শিশু সহ ৩জন অগ্নি দগ্ধ হয়েছে। ১৯ ফেব্রুয়ারী ভোর রাতে উপজেলার ছোট মহেশখালী ইউনিয়নের উত্তর কুল কাছিম আলী কাটা গ্রামে মৃত নুর আহাম্মদদের পুত্র রহমত উল্লাহর মুদির দোকানে অগিন্কান্ডের সুত্রপাত হয়। এ সময় রহমত উল্লাহর স্ত্রী গোলজার বেগম শিশু পুত্র রাকিব ও সামি কে নিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় ছিল। ছোট মহেশখালীর চেয়াম্যান এর বাড়ী সংলগ্ন ওয়াজ মাহফিল শেষে বাড়ী ফিরে রহমত উল্লাহ ঘুমিয়ে পড়ে বাড়ীতে । রাত ৩টার দিকে আগুনের শিখা ঘুমন্ত অবস্থায় শরীরের সেক লাগলে বাড়ীর মালিক রাহামত উল্লাহ কোন মতে শিশু পুত্র রকিব সামি ও স্ত্রী গোলজাকে বাহির হওয়ার জন্য চিৎকার দিলে এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে একটি জানালা ভেঙ্গে আগুনের লিলিহান শিখা থেকে বিবস্ত্র অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে।বাড়ীর সাথে মুদির দোকান সহ সম্পূর্ন ভষ্মিভূত হয় । এ সময় শিশু পুত্র রাকিব ও বাড়ির মালিক রহমাত উল্লাহ ও স্ত্রী গোলজার বেগম অগ্নিদগ্ধ হয়। নগদ টাকা, ধান, স্বর্ণ ও আসবাবপত্র ,বাড়ী ও মুদির দোকানের ক্ষয় ক্ষতি প্রাথমিকভাবে ২লক্ষ ৫০ হাজার হবে বলে স্থানীয় চেয়ারম্যান জাহেদ বিন আলী মেম্বার আব্দুল মান্নান ও খুরশিদা খানম জানান।
অপর দিকে ১৯ শে ফেব্রুয়ারী রবিবার বড় মহেশখালী ইউনিয়নের ছোট কুলাল পাড়াস্থ নুরুল আলমের বসত ঘর এর বিদ্যুতের মিটারের সর্টসার্কিট থেকে সকাল আটটায় আগুনের সুত্র পাত হয়।এ সময় স্থানীয় কালু মিয়ার পুত্র নুরুল আলম অলি আহাম্মদের পুত্র এরশাদ উল্লাহ রফিক উল্লাহ নুরুল বশরের পুত্র মনজান আরার ঘর সম্পূর্ন ভষ্মিভূত হয়। ফায়ার সাভিসের ভারপ্রাপ্ত টিম লিডার দীমান বডুয়া ও স্বপনের নেতৃত্বে একটি দমকলের গাড়ী আগুন নিয়ন্ত্রণ আনলে প্রথম সুত্রপাত হওয়া বাড়ীর সাথে যুক্ত ৪টি বাড়ী পুড়ে চ্ইা হয়ে যায়। এ সময় পার্শ্বে থাকা হাজী ওমর আলীর খুকু মনি ডেকোরেটার্স,খোকন ওয়ার্কশপ, রাশেল ওয়ার্কশপ,এবং সিয়াম ব্রদার্স নামে ৪টি দোকান আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। স্থানীয় বড় মহেশখালী ইউপির (ভারপ্রাপ্ত্) চেয়ারম্যান দলিলুর রহমান জানান, অগ্নিকান্ডে বাড়ীর মালিকগণ ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের পূর্নবাসনে প্রশাসনের দ্রুত ব্যবস্থা করা জরুরী। বাড়ী ও দোকান সহ ক্ষয়ক্ষতি ৮লাখ টাক হবে বলে স্থানীয় ব্যবসায়রা দাবী করেন।এ ব্যপাারে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালাম জানান, অগ্নিকান্ডের বিষয়ে সংবাদ পেয়েছি ক্ষতি গ্রস্থদের সহায়তার ব্যবস্থা করা হবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :