২২ অক্টোবর, ২০১৯ | ৬ কার্তিক, ১৪২৬ | ২২ সফর, ১৪৪১


বিবিএন শিরোনাম
  ●  রোহিঙ্গা যুবককে ছেলে সাজিয়ে ভোটার করার চেষ্টা, ২ জনের সাজা   ●  ঢাকায় বিমান থেকে নেমে চকরিয়ার ২ তামাক ব্যবসায়ী নিখোঁজ   ●  আবারও প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো   ●  একনেকে ৪,৬৩৬ কোটি টাকার ৫টি প্রকল্প অনুমোদন   ●  ঈদগাঁওতে ৭ বছরের ভাতিজিকে ধর্ষনঃ ধর্ষক চাচা আটক   ●  মাদক মামলায় এসআই’র ৫ বছরের কারাদণ্ড   ●  ঈদগাহকে থানা হিসেবে অনুমোদন   ●  কক্সবাজারের সোনাদিয়া দ্বীপে শিল্প-কারখানা স্থাপন নয় : প্রধানমন্ত্রী   ●  কক্সবাজার জেলা কমিউনিটি পুলিশ : সাংবাদিক তোফায়েল সভাপতি, যুবলীগের বাহাদুর সেক্রেটারি   ●  গুজব ছড়িয়ে সাম্প্রদায়িক অনুভূতিতে আঘাত হানা থেকে বিরত থাকুন : ডিসি কামাল হোসেন

মহেশখালী নৌ-রুটে স্পিডবোট ডুবে ৫ ভারতীয় পর্যটক আহত, চালক নিখোঁজ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
কক্সবাজার-মহেশখালী নৌপথে ড্রেজারের সাথে ধাক্কা লেগে বাকখালী নদীর মোহনায় স্পিডবোট ডুবে পাঁচ ভারতীয় নাগরিক আহত হয়েছেন। সোমবার(০৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এঘটনায় এখনও স্পীড বোটের চালক নিখোঁজ রয়েছে। আর আহতদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি (অপারেশন) মাঈন উদ্দিন জানান, স্পিডবোটটি ১০ জন ভারতীয় নাগরিকসহ কক্সবাজার থেকে মহেশখালীর দিকে যাচ্ছিলো। এসময় পথে মধ্যে স্পিডবোটটি উল্টে গিয়ে ১০ যাত্রীই নদীতে পড়ে যান। পরে স্থানীদের সহায়তায় তাদের আহতাবস্থায় উদ্ধার করা হয়। আহতদের মধ্যে পাঁচজন গুরুতর হওয়ার কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠোনো হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল কালাম জানান, পর্যটকবাহী স্পীডবোটটি কক্সবাজার থেকে মহেশখালীর উদ্দেশ্য যাচ্ছিল। এক পর্যায়ে বাঁকখালী মোহনায় এসে সাগর থেকে বালু উত্তোলনরত একটি ড্রেজারের বোটি ধাক্কা খায়। এতে স্পীডবোটি উল্টে সকল যাত্রী নদীতে পড়ে যায়। এসময় অন্যবাটের লোকজন সাগরে পড়ে যাওয়া সাত পর্যটক যাত্রীকে তাৎক্ষণিক উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। তবে দুই নারীসহ অন্য তিন পর্যটক ও স্পীড বোটটির চালক আনিছ নিখোঁজ হয়। পরে উদ্ধারকারী বাহিনীর নিখোঁজ তিন ভারতীয় পর্যটককে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করেন। তবে চালক আনিছ এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। চালকের অদক্ষতার কারণে বোটটি ড্রেজিং বোটের সাথে ধাক্কা লাগে বলে যাত্রীরা অভিযোগ করেন।

দুর্ঘটনার শিকার ওই বোটের যাত্রী সমিত ঘোষ জানান, তারা কলকতা থেকে কক্সবাজারে বেড়াতে আসেন ১৭ জন। তাদের মধ্যে ১০ জন সকালে স্পীডবোটে করে আদিনাথ দর্শনে যান। সেখানে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার শিকার হন।

কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ সাফায়েত হোসেন সাগর বলেন, নৌবাহিনীর সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার কার্যক্রম চালিয়ে নিখোঁজ তিনজনকে উদ্দার করি। চালক নিখোঁজের কথা বলা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
মহেশখালী উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেন, ‘কি কারণে স্পীডবোটটি দুর্ঘটনা শিকার হয়েছে তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।’

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।





আপনার মতামত লিখুন :